স্বাস্থ্যে গুণগত পরিবর্তন টিমে নেই চিকিৎসক, জানেন না মন্ত্রী ও ডিজি

স্বাস্থ্যসেবায় গুণগত পরিবর্তন আনতে ইনোভেশন টিম গঠন করেছে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়। ২০ অক্টোবর মন্ত্রণালয় উপসচিব উর্মি তামান্না স্বাক্ষরিত অফিস আদেশে এ টিম গঠনের কথা বলা হয়েছে। তবে ১৫ সদস্যের এ টিমে কোনো চিকিৎসককে রাখা হয়নি।

আদেশে বলা হয়েছে, ৮ এপ্রিলের মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের প্রজ্ঞাপনের আলোকে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য সেবা বিভাগ ইনোভেশন টিম গঠন করে। ইনোভেশন টিমের কাজের পরিধি বাড়ায় ২৫ আগস্ট অনুষ্ঠিত সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ইনোভেশন টিমের কমিটি পুনর্গঠন করা হল।

মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিবকে (প্রশাসন) আহ্বায়ক করে গঠিত এ টিমে সদস্য সচিব করা হয়েছে উপসচিব (প্রশাসন-৪)। টিমের অন্য সদস্যরা হলেন- অতিরিক্ত সচিব (ঔষধ প্রশাসন), যুগ্ম সচিব (প্রশাসন), যুগ্ম সচিব (বাজেট), যুগ্ম সচিব (মানবসম্পদ), যুগ্ম সচিব (পার), যুগ্ম সচিব (স্বাস্থ্য), উপসচিব (ক্রয় ও সংগ্রহ-১), উপসচিব (প্রশাসন-৩), উপসচিব (প্রশাসন-২), উপসচিব (সরকারি স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনা-১), উপসচিব (নার্সিং সেবা-১), উপসচিব (জনস্বাস্থ্য-২), সিস্টেম অ্যানালিস্ট।

টিমের কার্যপরিধির ব্যাপারে বলা হয়েছে, স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের সেবা প্রদানের প্রক্রিয়া এবং কাজের অভ্যন্তরীণ প্রক্রিয়ায় গুণগত পরিবর্তন আনা। উদ্ভাবনী প্রস্তাব বিষয়ে পরিবর্তনের বার্ষিক কর্মপরিকল্পনা প্রণয়ন এবং অনুমোদন ও বাস্তবায়ন।

নিয়মিত টিমের সভা অনুষ্ঠান, কর্মপরিকল্পনা বাস্তবায়ন, অগ্রগতি পর্যালোচনা এবং মাসিক সভায় উপস্থাপন। অধিদফতর/দফতর ও সংস্থা পর্যায়ে গঠিত সংশ্লিষ্ট অন্যান্য ইনোভেশন টিমের সঙ্গে যোগাযোগ ও সমন্বয়। প্রতি বছর ৩০ জুনের মধ্যে পূর্ববর্তী অর্থবছরের পূর্ণাঙ্গ বার্ষিক প্রতিবেদন এবং ইনোভেশন ডকুমেন্ট প্রণয়ন, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগে প্রেরণ ও স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের ওয়েবসাইটে প্রকাশ।

ইনোভেশন টিমে কোনো চিকিৎসক নেই কেন জানতে চাইলে স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. এবিএম খুরশীদ আলম যুগান্তরকে বলেন, এ ধরনের কোনো টিমের বিষয় তাকে জানানো হয়নি। এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক যুগান্তরকে বলেন, এ ধরনের কোনো টিমের বিষয়ে আমার জানা নেই।

হয়তো মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা নিজেরাই এটা গঠন করেছেন। তবে যেহেতু স্বাস্থ্য সেবার গুণগত মানের পরিবর্তনের কাজ করবে এ টিম, তাই টিমে চিকিৎসক রাখার প্রয়োজন ছিল। যেহেতু স্বাস্থ্য সেবা সেবার গুণগত মানের বিষয়ের সঙ্গে নানা কারিগরি বিষয় জড়িত, তাই চিকিৎসকরা এটার সঙ্গে থাকলে আরও ভালো হতো। তিনি বিষয়টি নিয়ে খোঁজ নেবেন বলেও জানান।